You are currently viewing RoboAdda’র বিজয় উল্লাসের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

RoboAdda’র বিজয় উল্লাসের সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

  • Post author:

গত ১৯ই ডিসেম্বর, ২০২০ রাত নয়টায় একটি ভার্চুয়াল প্রোগ্রামের মাধ্যমে RoboAdda’র বিজয় উল্লাস ২০২০ এর বিজয়ীদের নাম ঘোষণা ও সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ গনিত অলিম্পিয়াডের সাধারন সম্পাদক মুনীর হাসান স্যার। ফেসবুক লাইভে অনুষ্ঠিত রোবোআড্ডার চিফ স্ট্রাটেজি অফিসার সাদিয়া আফরিন অনির উপস্থাপনায় এই প্রোগ্রামে আরো উপস্থিত ছিলেন রোবোআড্ডার দুজন উপদেষ্টা বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী স্যার (এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর, সিএসই বিভাগ, সাস্ট) ও তাসনীম বিনতে শওকত ম্যাম (এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর, ইসিই বিভাগ, রুয়েট), প্রোগ্রামিং কনটেস্টের জাজ মারুফ আহমেদ মৃদুল স্যার (লেকচারার, সিএসই বিভাগ, সাস্ট), আরডু অলিম্পিয়াডের জাজ মিশাল ইসলাম, রোবোআড্ডার চিফ অপারেশন অফিসার মিনহাজুল আবেদীন ও রোবোআড্ডার চিফ টেকনিক্যাল অফিসার ফজলে এলাহী তন্ময়।

স্বাগত বক্তব্যে মিনহাজুল আবেদীন বলেন, বিজয়ের ৪৯ বছর পূর্ণ করে ৫০ এ পা দিবে বাংলাদেশ। স্বাধীনতার এই ৫০ বছরে অনুন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। শিক্ষা, গবেষণা, অর্থনীতি সব ক্ষেত্রেই খুব দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। আর ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে টেকনোলজি শিক্ষার গুরুত্ব ও বাড়ছে দিনদিন। সেই লক্ষ্যে সবার কাছে টেকনোলজির শিক্ষা সহজ করে নিজের ভাষায় পৌঁছে দেওয়ার কাজ করছে RoboAdda। পাশাপাশি টেকনোলজি নিয়ে গবেষণা আর নতুন কিছু করার উদ্যমে সব সময় কাজ করে যাচ্ছে আমাদের রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট টিম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুনীর হাসান স্যার বলেন, রোবোটিক্স ও প্রযুক্তি নিয়ে রোবো আড্ডার কার্যক্রম বেশ প্রশংসার দাবি রাখে। রোবোআড্ডা দেশের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদেরও রোবোটিক্স নিয়ে জানার ও কাজ  করার দারুন সুযোগ করে দিচ্ছে। রোবোআড্ডার কার্যক্রম ও উদ্দেশ্যকে আমি সাধুবাদ জানাই এবং ভবিষ্যতে তাদের কাজের পরিধি আরো বৃদ্ধি পাবে বলেই আমার প্রত্যাশা।

বক্তব্যে বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী স্যার বলেন, রোবোআড্ডার কার্যক্রম অবশ্যই দেশের রোবোটিক্স ও প্রোগ্রামিং এর জগতে অবদান রাখছে।  উন্মুক্ত এই প্ল্যাটফর্মে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও নিজেদের প্রমান করার সুযোগ পাচ্ছে। রোবো আড্ডার সাথে যুক্ত থাকতে পারা আমার জন্য একই সাথে সৌভাগ্যের ও সম্মানের। তাদের সহযোগীতায় ভবিষ্যৎ প্রজন্ম রোবোটিক্স ও প্রোগ্রামিং এর জগতে আরো অনেক দূর এগিয়ে যাবে এটাই আমার কামনা।

আরডু অলিম্পিয়াডের বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করে মিশাল ইসলাম বলেন, ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্টদের সাথে পাল্লা দিয়ে স্কুলের বাচ্চারা যেভাবে ভালো করছে তাতে আগামীতে রোবোটিক্সে বাংলাদেশে উল্লেখযোগ্য কাজ হবে আশা করি। পাশাপাশি আরডুইনোর ব্যাসিক ভালো করার পরামর্শ দেন তিনি।

প্রোগ্রামিং কনটেস্টের বিজয়ীদের নাম ঘোষনা করে প্রবলেম সেট নিয়ে কথা বলেন মারুফ আহমেদ মৃদুল স্যার। প্রবলেম গুলোর সলুশন ব্যাখ্যা করার পাশাপাশি তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করেছি স্ট্যান্ডার্ড মানের প্রবলেম সেট তৈরী করার জন্য যেনো বিগেনাররা উতসাহিত হয়। পাশাপাশি বাংলাতে প্রবলেম আর প্রতি প্রবলেমে গল্প প্রবলেম সেটকে মজার করেছে।

সবাই আগামীতে আরো বড় আকারে এমন ইভেন্ট আয়োজনের প্রত্যশা ব্যাক্ত করেন।সবশেষে বিশ্বপ্রিয় চক্রবর্তী স্যার RoboAdda’র বিজয় উল্লাস ২০২০ এর সমাপনী ঘোষনা করেন।

উল্লেখ্য, ১৮-১৯ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে অনুষ্ঠিত এই ইভেন্টের তিনটি সেগমেন্টে (প্রোগ্রামিং কনটেস্ট, আরডু অলিম্পিয়াড, সেমিনার) প্রায় ৪০০ প্রতিযোগী অংশ নেয়। বিজয়ীদের জন্য ছিলো ১৩০০০+ টাকা সমমুল্যের উপহার।

Leave a Reply